Home   |   About   |   Terms   |   Contact    
RiyaButu
A platform for writers

সদাচার


বাংলা ছোট গল্প


All Bengali Stories    36    37    38    39    40    41    (42)    43   

পৌরাণিক

সদাচার
বাংলা ছোট গল্প
- পৌরাণিক
১০-০২-২০১৯ ইং



◕ A platform for writers Details..

◕ Story writing competition. Details..


এক রাজার দেশে এক পণ্ডিত ব্যক্তি বাস করতেন। যেমন ছিল তার পাণ্ডিত্য তেমনি ছিল তার সদাচার। প্রজারা উনাকে খুব সম্মান করতেন। রাজাও উনাকে খুব ভালবাসতেন, নানান কাজে উনার পরামর্শ নিতেন। ফলে রাজদরবারে উনার অবাধ যাতায়াত ছিল। একদিন তিনি ভাবলেন, "সবাই আমাকে এত সম্মান করে , এত ভালবাসে; এর কারণ কি ? এরা কি আমার পাণ্ডিত্যকে ভালবাসে, নাকি আমার সদাচারকে ভালবাসে? এর উত্তর আমাকে বের করতে হবে।"

পরদিন তিনি রাজদরবারে গেলেন, কিন্তু ফিরে আসার সময় কাউকে কিছু না বলে রাজকোষ থেকে চুপচাপ একটি স্বর্ণ-মোহর নিয়ে চলে এলেন। রাজকোষের অধিকারীটি ভাবল, "হয়তো খুব গুরুত্বপূর্ণ কোন কাজ আছে তাই তিনি একটি মোহর নিয়ে গেলেন; প্রথা মেনে জানাতে ভুলে গেছেন।"



পরদিন আবার তিনে রাজদরবারে এলেন আর ফিরে যাবার সময় কাউকে কিছু না বলে চুপিচুপি দুটি মোহর নিয়ে গেলেন। রাজকোষের অধিকারীটির সন্দেহ হল, তিনি এ কথাটি মহামন্ত্রীকে জানালেন। এবার মহামন্ত্রীও সেই পণ্ডিতের উপর নজর রাখতে লাগলেন। পরদিন ঐ পণ্ডিত আবার রাজদরবারে এলেন, কিন্তু আজ উনার ফিরে যাবার সময় মহামন্ত্রী গোপনে তার পিছু-পিছু চলতে লাগলেন। মহামন্ত্রী দেখলেন, কাউকে কিছু না বলে সেই পণ্ডিত চুপিচুপি এক অঞ্জলি স্বর্ণ-মোহর নিজের থলিতে ভরে নিলেন। খুব অবাক হলেন মহামন্ত্রী। ভাবলেন,"এ তো রাজকোষ থেকে চুরি হচ্ছে। এই খবরটা অবশ্যই মহারাজকে জানাতে হয়!" তিনি খবরটা রাজাকে জানালেন।

তখন সিপাহী দিয়ে ঐ পণ্ডিতকে রাজদরবারে ধরে আনা হল। সকল প্রজা আর রাজ-দরবারিদের সামনে রাজা উনার বিচার করলেন। চুরি করার অপরাধে উনার মৃত্যুদণ্ড হল। মৃত্যুদণ্ডের আদেশ শুনে পণ্ডিত 'হা-হা' করে জোরে-জোরে হাসতে লাগলেন। তা দেখে সবাই অবাক। রাজা সেই পণ্ডিতের কাছে এই হাসির কারণ জানতে চাইলেন। তখন পণ্ডিত বললেন “মহারাজ, একটি ব্যাপারে আমার কিছু কৌতূহল ছিল। আমি জানতে চেয়েছিলাম, সমস্ত লোক যে আমাকে এত সম্মান করে, এত ভালবাসে; ওরা কী আমার পাণ্ডিত্যকে সম্মান করে ,না-কি আমার সদাচারকে সম্মান করে, ভালবাসে? এর উত্তর খুঁজে পেতেই আমি রোজ রাজকোষ থেকে স্বর্ণ-মোহর চুরি করতাম। আজ আমি আমার প্রশ্নের উত্তর পেয়ে গেছি। আমি জানলাম যে, লোকে আমার সদাচারকেই এত সম্মান করে, এত ভালবাসে। কারণ, যেই আমি আমার সদাচার ছাড়লাম সবাই আমার পাণ্ডিত্যের কথাও ভুলে গেল। আপনিও ভুলে গেলেন আর আমাকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিলেন। তাই আমি নিজের উপর নিজে হাসছিলাম।" কথা শেষ করে তিনি তাঁর পুটলি থেকে সবগুলি স্বর্ণ-মোহর বের করে আবার তা রাজা কাছে ফিরিয়ে দিলেন। রাজা- প্রজা সবাই চুরির আসল কারণ জানতে পেরে "বাহ! বাহ!" করে উঠল। রাজা খুব খুশি হলেন আর সেই পণ্ডিতকে উনার পুরানো সম্মান ফিরিয়ে দিলেন।


◕ A platform for writers Details..

◕ Story writing competition. Details..




◕ This page has been viewed 1048 times.


ত্রিপুরার পটভূমিতে রচিত গোয়েন্দা গল্প:
মাণিক্য
সর্দার বাড়ির গুপ্তধন রহস্য
প্রেমিকার অন্তর্ধান রহস্য
লুকানো চিঠির রহস্য


All Bengali Stories    36    37    38    39    40    41    (42)    43