Home   |   About   |   Terms   |   Contact    
A platform for writers

বিদায় বেলায়

Bengali Story

All Bengali Stories    87    88    89    90    91    92    93    94    95    (96)     97   


■ স্বরচিত গল্প লেখার প্রতিযোগিতা - মে, ২০২১ Details..

West Bengal Police Recruitment Challenger for Constable (Prelim + Main) & SI (Prelim) in Bengali Paperback
From Amazon

■ ■



বিদায় বেলায়

লেখিকা – সংঘমিত্রা রায়, Karimganj bazer, Assam


বিদায় বেলায়

লেখিকা – সংঘমিত্রা রায়, Karimganj bazer, Assam

আয়োজন সামান্য কিন্তু আনন্দ অনেক যেন চারপাশে ফুলঝুরির মতো উড়ে বেড়াচ্ছে! কলা গাছের তোরণ, কিছু বুনো ফুল, নারকেলের পাতা, এসব দিয়ে আশ্রমকে খুব সুন্দর করে সাজিয়েছে আশ্রমের বাচ্চারা। সেই সঙ্গে আম পাতার মালা, কাগজ দিয়ে ফুল বানিয়ে চারপাশে লাগিয়েছে ছেলে-মেয়েরা। একেবারে দূষণ মুক্ত সাজসজ্জা সবই ওরা ওদের ইচ্ছেমত করেছে। আশ্রমের ছেলে-মেয়েরা প্রতি বছর এই দিনটার জন্য অপেক্ষা করে থাকে। ভগবানকে কেউ কখনো চোখে দেখেনি, কিন্তু তাদের কাছে ভগবান হচ্ছেন তাদের দাদাবাবু। এই দাদাবাবু না থাকলে এরা যে কোথায় ভেসে যেত কেউ জানে না। কোনও আশ্রমে তাদের গুরুদেবের জন্মদিন যেমন ধুমধাম করে পালন করা হয়, এখানেও তাই হয়। দাদাবাবু অবশ্য তাদের এসব করতে বারণ করেন, কিন্তু এই দিনটায় কেউ তার কথা শুনে না। আশ্রমের ছেলে-মেয়েরা, দুঃস্থ মহিলা, এরাই দাদাবাবুর জন্মদিনের আয়োজন করে। তবে তাদের উৎসাহ দেখে দাদাবাবু নিজেই ওদের জন্য বিশেষ কিছু খাবারের আয়োজন করেন। এবার তিনি বিরিয়ানি আর মাংসের ব্যবস্থা করেছেন সবার জন্য। এইদিনে কিছু ভিখারি আসে এখানে, তাদেরও যত্ন করে খেতে দেওয়া হয়। ছেলে-মেয়েরা নিজেদের টাকা জমিয়ে একটা কেক কিনে এনেছে। সন্ধ্যাবেলা তাদের আবদারে দাদাবাবু এটা কেটে সবাইকে নিজের হাতে কেক খাওয়াবেন। সবাই মিলে তার জন্য একটা বড় ফুলের তোড়া বানিয়েছে। তিনি অন্য কিছু দেওয়া পছন্দ করেন না।

শ্রাবণ মাসের দুপুর বারোটা বাজে। সব বাচ্চারা লাইন ধরে লম্বা বারান্দায় বসেছে। অন্য দিকে কিছু ভিখারি বসেছে। তাদের মনে খুব আনন্দ আজ তারা বিরিয়ানি আর মাংস খাবে। দাদাবাবু তাদের জন্য একটু দৈ-মিষ্টির ব্যবস্থা করেছেন।

"আমাকে আগে বিরিয়ানি দাও বেলা মাসি!"

"না-না আমাকে আগে দাও, খুব খিধে লেগেছে, বেশী করে খাব।"

"আরে দিমু -দিমু, সবাইরে দিমু, এতো চিৎকার করিস না। চিৎকার করলে কাউরে দিমু না।"

"আরে বেলা, ওদের বকিস না। আজ ওদের একটু হইচই করতে দে। ঠিক আছে আজ আমি সবাইকে বিরিয়ানি পরিবেশন করি, তোরা মাংস নিয়ে আয়।"

দাদাবাবু বিরিয়ানি নিয়ে বাচ্চাদের দিতে থাকেন। তখনই মেয়েলি ক্ষীণ গলায় কেউ বলল,"কিছু খেতে দেবে গো, দু'দিন থেকে কিছু খাইনি!"

সবাই মাথা তুলে তাকাল। পঁয়তাল্লিশ-তম জন্মদিনে আশ্রমের সবাইকে নিজ হাতে বিরিয়ানি পরিবেশন করছিলেন সকলের দাদাবাবু প্রকাশচন্দ্র জলদাস। কথাগুলো শুনে তিনিও ঘুরে তাকালেন। দেখলেন ময়লা,ছেঁড়া, কাঁদা-মাখা শাড়ী পরা এক মহিলা দাঁড়িয়ে আছে। রুগ্ন শরীর, মাথা ন্যাড়া, মনে হচ্ছিল খুব কাঁপছে। আর কেউ কিছু বলার আগেই মাটিতে লুটিয়ে পড়ল।

"এই বেলা, জবা, দেখ তো মহিলার কি হয়েছে?"

"কোনও ভিখারি হইব দাদাবাবু, আপনার জন্মদিন শুইনা খাইতে আইছে।"

"সে যে-ই হোক অসুস্থ মানুষ, ঘরে নিয়ে যা। দেখ কি হয়েছে।"

মহিলাকে ধরে নিয়ে যেতে-যেতে বেলা বলল, "যত মরা বইয়া যায় ,গঙ্গার ঘাট ছুঁইয়া যায়। এই মহিলাও জানে, কই আইলে তার ঠাই মিলব।"

"হু, ও মনে হচ্ছে আমাদের মতোই অসহায়।"

"যে-ই হোক না কেন তাকে অবহেলা করো না, একটু যত্ন কর। মনে রেখো মানুষের সেবা করাই আমাদের ধর্ম। এদিকটা আমরা সামলে নেব, তোরা ওকে দেখ। বাড়াবাড়ি কিছু হলে আমাকে খবর দিস।"

"ঠিক আছে দাদাবাবু।"

একটু পরে জবা এসে খবর দিল মহিলার খুব জ্বর। দাদাবাবু তখনই পরেশ ডাক্তারকে ডেকে পাঠালেন। আশ্রমের সবাই খুব মজা করে খাচ্ছে। প্রকাশবাবুর ওদের সঙ্গে আজ বসে খাবার কথা ছিল। কিন্তু এখন তিনি বললেন,"তোরা খা, ডাক্তারবাবু এসেছেন আমি একটু দেখে আসি মহিলার কি হল!"

"আজ তোমার জন্মদিন দাদাবাবু, আমাদের সঙ্গে খাবে না?"

"খাবো, আমি আসছি।"

পরেশ ডাক্তার ওদের গ্রামের ডাক্তার। বয়স্ক মানুষ। তার বড়-বড় ডিগ্রী না থাকলেও অভিজ্ঞতা অনেক। মহিলাকে দেখে বললেন,"এই মহিলা কোন কঠিন রোগে ভুগছে, সম্ভবত ক্যান্সার হবে। এখন জ্বর এসেছে,মনে হচ্ছে পেটে কিছু নেই। আমি ঔষধ লিখে দিচ্ছি ওকে ঔষধের সঙ্গে কিছু খেতে দেবে, নইলে কাজ করবে না।"

মহিলার জ্ঞান ফিরেনি। তাকে কেউ চেনে না, তবে এই আশ্রমে অচেনা লোকেরাই আসে। পরে এক- অপরের আপনজন হয়ে যায়। জবা মহিলার জন্য দুধ আনতে গেছে, অন্য কিছু তাকে খাওয়ানো যাবে না। প্রকাশবাবু একদৃষ্টিতে তাকিয়ে আছেন মহিলার দিকে। অনেকদিন আগের একটা চেহারার সঙ্গে সামান্য মিল আছে, ঠোঁটের কাছের তিলটা একই আছে। কিন্তু সে এখানে আসবে কি করে? আর এত সুন্দর মুখ,চেহারা কি এভাবে ঝলসে যেতে পারে? সবই উনার মনের ভুল!

"দাদাবাবু তুমি খাইতে চইলা যাও, আমি আর জবা মহিলার দেখাশোনা করুম।"

"হু যাচ্ছি।"
Next Part


All Bengali Stories    87    88    89    90    91    92    93    94    95    (96)     97   


Railway Recruitment Challenger (in BENGALI - New Edition
From Amazon

■ ■

RiyaButu.com কর্তৃক বিভিন্ন Online প্রতিযোগিতাঃ
■ স্বরচিত গল্প লেখার প্রতিযোগিতা - মে, ২০২১ Details..
■ প্রবন্ধ প্রতিযোগিতা - ২০২১ Details..
■ Hindi Story writing competition... Details..
■ RiyaButu.com হল লেখক / লেখিকাদের গল্প, উপন্যাস, প্রবন্ধ প্রকাশ করার একটি মঞ্চ। ঘরে বসেই নির্দ্বিধায় আমাদের কাছে লেখা পাঠাতে পারেন সারা-বছর ... Details..


◕ RiyaButu.com, এই Website টি সম্পর্কে আপনার কোনও মতামত কিংবা পরামর্শ থাকলে নির্দ্বিধায় আমাদের বলুন। যোগাযোগ:
E-mail: riyabutu.com@gmail.com / riyabutu5@gmail.com
Phone No: +91 8974870845
Whatsapp No: +91 7005246126