Home   |   About   |   Terms   |   Contact    
Read & Learn
 

বনের চিঠি

বাংলা ছড়া

-হরপ্রসাদ সরকার

All Pages     8    9    (10)     11    12    13


An offer to make a Website for you.

hostgator





◍ ◍   হাঁসের ডিম্ব   ◍ ◍
পড়তে বসে টুনটুনি
আঁকল হাঁসের ডিম্ব
তাই না দেখে কাঠ বিড়ালী
হাসতে হাসতে লম্ব।






◍ ◍   গাধার ভাই   ◍ ◍
চেয়ারে বসে ঘুমাচ্ছিল গাধার ভাই গদু
স্বপন দেখে মিটিমিটি হাসছিলেন খুব চাঁদু।
মজা করে মণ্ডা মিঠাই খাচ্ছিলেন তিনি
লালমোহন, চমচম গুড়, পায়েস, চিনি।
হঠাৎ এক বলাকা এসে কামড় দিল নাকে
পালিয়ে গেল গদুর ঘুম যা ছিল দুই চোখে।
হুর-মুরিয়ে উঠে গদু মারল এমন ডাক
পরি-কি-মরি পালিয়ে গেল গাছের দশ কাক।






◍ ◍   রানী মুর্গীর দুষ্ট ছানা   ◍ ◍
ঝুলছিল মরা শাখায় আধ মরা মরিচখানা
ঠুকর মারল তার মাঝে রানী মুর্গীর দুষ্ট ছানা।
বাঘা-ঝাল লাগল তার চিকন দুই ঠোটে
গট-গট এক বাটি জল খেয়েনিল এক চোটে।
ঝাল তবু কমল না তার মুখে হাঁস-ফাঁস করে
দৌড়ে যায় ঘরের পিছে কভু দৌড়ে ডুকে ঘরে।
দিশা-বিশা না পেয়ে রানী মুর্গীর ছানা
কেঁদে কেঁদে লাগল খেতে মিহি চিনির দানা।






◍ ◍   বাঘার কাঁদন   ◍ ◍
ঘুমের মধ্যেই হঠাৎ করে চেঁচিয়ে উঠল বাঘা
নাকে নাকি লাথি দিয়েছে বগীর ভাই বগা।
ভেঙ্গে দিয়েছে নাকটা তার করে দিয়েছে বাঁকা
বাঁকা নাকে কেমন করে গন্ধ যাবে শোঁকা।
হাল্লু- হাল্লু কেঁদে বাঘা আলো জ্বালিয়ে দেখে
ঠিক আছে কি নাকটা তার যেমন ছিল আগে?




◍ ◍   পাতি হাঁসের ছানা   ◍ ◍
নেচে নেচে বাড়ী এল পাতি হাঁসের ছানা
আজ স্কুলে হয়নি পড়া কালও হবে না।
মাথায় রেখে বই-সিলেট কোমর ঘুরিয়ে নাচে
একটা মজা , দুইটা মজা এল হাতের কাছে।
তার পিছানে দাঁড়িয়ে ছিল বড় পাতি হাঁস
কান ধরে নিয়ে গেল কাটতে জমির ঘাস।
ফক ফকিয়ে কাঁদে মাঠে পাতি হাঁসের ছানা
দুটি দিনের ছুটি ছিল সব হল কানা।






◍ ◍   বগার মাছ ধরা   ◍ ◍
ছাতা মাথায় দিয়ে বগা ঠিক দুপুর বেলা
মাছ ধরতে গিয়েছিল নিয়ে একটা ঝোলা
আধা পা জলে রেখে দাঁড়িয়ে ছিল সে
কৈ মাছ ভীষণ রেগে কামড়ে দিল কষে।
পাউউ- পাউউ করে বগা তুরন্ত দিল উড়ান
ঐ ঝিলের কাছে গেলেই মলে নিজের কান।






◍ ◍   আমের জন্য দাঁত   ◍ ◍
পা চুলকচ্ছিল আরাম করে কাঠবিড়ালি বসে
পাকা আম দেখতে পেয়ে উঠল ভীষণ হেসে।
সুর-সুর করে ছুটতে গিয়ে এমন আছাড় খেল
মাটিতে পড়ে উঁচু দাঁত দুটিই ভেঙ্গে গেল।
বিছানাতে শুয়ে চাঁদু কাঁদে আর ভাবে
আমের জন্য যে দাঁত গেল সে দাঁত পাব কবে?




◍ ◍   টুনটুনি ও চড়াই   ◍ ◍
টুনটুনিটা লেজ নাড়িয়ে নাচে গাছের শাখায়
ঘুম থেকে রোজ উঠে দেখতে পায় তা চড়াই।
চেয়ারে বসে তন্দ্রা চোখে টুনটুনিকে দেখে
মিটি-মিটি হাসে চড়াই আধা বন্ধ চোখে।
নাচের শেষে টুনটুনিটা মধুর গান গায়
চেয়ারে বসে চড়াই পাখী আবার ঘুমিয়ে যায়।






◍ ◍   কে যেন পালায়!   ◍ ◍
খরগোসটা ভাগছে বেজান টিং-টিং-টিং
তার পিছনে ছুটছে বলদ উঁচিয়ে দুই সিং
হঠাৎ করে বলদ বাবু কেন রেগে গেল?
গাছের ডালের বাঁদর মশাই ভেবে নাহি পেল।
ক’দিন ধরেই বলদ বাবু যখন দুপুরে ঘুমায়
লেজে তার টান মেরে কে যেন পালায়!
আজ তিনি ঘুমিয়ে ছিলেন গাছের নীচে শুয়ে-
কে যেন পালাচ্ছিল তাকে, কানমলা দিয়ে।






◍ ◍   টুনটুনি আর বাঘা   ◍ ◍
বেলি ফুলের শাখায় টুনটুনিটা গান গায়
তার নীচে শুয়ে বাঘা গান শুনে যায়।
টুনটুনিটা আদর করে বাঘাদার মোচ ধরে-
বাঘা তাকে ঘুরিয়ে আনে দু বন পিঠে করে।
টুনটুনি আর বাঘাতে খুব ভাল ভাব
এসো একদিন ঐ বনে হয়ে যাবে আলাপ।





Top of the page
All Pages     8    9    (10)     11    12    13

Amazon & Flipkart Special Products

   


Top of the page