Home   |   About   |   Terms   |   Contact    
A platform for writers

গ্রীনহাউস এফেক্ট

গ্রীনহাউস এফেক্ট

◄ All Articles




This article is about the Green House Effect.
Last updated on: .
Landguage: Bengali.




◕ A platform for writers Details..

◕ Story writing competition. Details..


◕ শীত প্রধান দেশে অপেক্ষাকৃত কম সূর্যালোকের কারণে, বড় বড় কাচের ঘরে বিভিন্ন ফসলের চাষ ও সংরক্ষণ করা হয়। এই কাচের ঘরটিকে বলে গ্রীন হাউস আর এই কাচের ঘরটির কারণে ঘরের ভীতরে তাপমাত্রার যে পরিবর্তন হয় বা প্রতিক্রিয়া হয় তাকে বলে গ্রীনহাউস এফেক্ট।

গ্রীনহাউস এফেক্টে কাচের ঘরটির গুরুত্ব কি?

আমরা জানি আলো যেমন একটি শক্তি, তেমনি তাপ ও একটি শক্তি। আলোর তরঙ্গের মত তাপ ও তরঙ্গের আকারে চলতে পারে। ফলে সূর্য থেকে আসা ক্ষুদ্র তরঙ্গ দৈর্ঘ্যের তাপরশ্মিগুলি কাচ ভেদ করে ঘরে প্রবেশ করে যায়। কিন্তু ঘরের ভীতর থেকে বিকিরিত দীর্ঘ তরঙ্গের তাপরশ্মিগুলি কাচ ভেদ করে বাইরে যেতে পারে না। ফলে এরা ঘরের ভিতরের তাপমাত্রা বাড়াতে থাকে।আর ঘরের ভিতরের তাপমাত্রা বাইরের তাপমাত্রার তুলনায় বাড়তে থাকে। ফলে ঘরের ভীতরে ফসলের চাষ বা সংরক্ষণের সুবিধা হয়।

গ্রীনহাউস এফেক্ট নিয়ে কেন বিশ্ব চিন্তিত?



এই বড় কাচের ঘরটিকে আমরা বায়ুমণ্ডলের সাথে তুলনা করতে পারি। সূর্য থেকে আসা তাপরশ্মিগুলি আমাদের বায়ুমণ্ডল ভেদ করে পৃথিবীতে এসে পৌঁছায়। কিন্তু বিকিরিত দীর্ঘ তরঙ্গের তাপরশ্মিগুলি সম্পূর্ণভাবে বায়ুমণ্ডল ভেদ করে বাইরে যেতে পারে না। কারণ কিছু কিছু গ্যাস এই দীর্ঘ তরঙ্গের তাপসীগুলিকে শোষণ করে নেয় এবং বায়ুমণ্ডলকে গরম করে রাখে।

এই গ্যাসগুলির পরিমাণ বায়ুমণ্ডলে সুনির্দিষ্ট। কিন্তু সবুজ বন ধ্বংস, কলকারখানার ধোঁয়া প্রভৃতির কারণে যতই এই গ্যাস গুলির পরিমাণ বাড়ে চলছে, বায়ুমণ্ডলের তাপমাত্রা ও ততই বাড়ে চলছে। এই গ্যাস গুলিকে বলে গ্রীনহাউস গ্যাস আর এই ঘটনাটিকে বলে গ্রীনহাউস এফেক্ট। এই গ্রীনহাউস এফেক্টের ফলে পৃথিবীতে জীবের অস্তিত্ব বিপদের সন্মুখিন হয়ে চলছে।

প্রধান প্রধান গ্রীনহাউস গ্যাসগুলি হলঃ
◕ কার্বন-ডাই-অক্সাইড

◕ মিথেন

◕ জলীয় বাষ্প

◕ ক্লোরোফ্লোরো কার্বন

◕ নাইট্রাস অ্যাসিড

গ্রীনহাউস এফেক্টের প্রভাব

এই গ্রীনহাউস এফেক্টের প্রভাবে সমগ্র পৃথিবীর জলবায়ুতে বিরাট তারতম্য দেখা দেবে। ক্রমশ তাপমাত্রার বৃদ্ধির ফলে মেরু প্রদেশের বিশাল পরিমাণ বরফ গলতে শুরু করেছে, ফল স্বরূপ সমুদ্রের জলস্তর ক্রমশ বাড়ছে। আগামী ৪০/৪৫ বছরে হয়তো অনেক দ্বীপ পৃথিবীর মানচিত্র থেকে মুছে যাবে।

গ্রীনহাউস এফেক্টের ফলে যথায় তথায় খর, বন্যা, ভূমিধ্বস, ভূমিকম্প, ভূমি-ক্ষয় হবে। মাটির জলধারণ ক্ষমতা হ্রাস পাবে। ফলে পানীয় জলের বিশাল সংকট শুরু হবে। চাষ-বাসের জন্য জলই পাওয়া যাবে না। সমগ্র খাদ্য-শৃঙ্খল বিনষ্ট হয়ে পড়বে।

কেন গ্রীনহাউস এফেক্টের প্রভাব বাড়ছে?

আরও উন্নত এবং আরাম আয়েশের জন্য আমরা ক্রমাগত প্রকৃতির উপর অত্যাচার করে চলছে। প্রতি নিয়ত হাজার হাজার হেক্টর জমি, গাছপালা, সবুজ বন ধ্বংস হচ্ছে। পাশাপাশি তৈরি হচ্ছে লক্ষ্য লক্ষ্য কারখানা, যানবাহন।

এই কল-কারখানাগুলিতে ব্যবহৃত মারাত্মক ক্ষতিকারক রাসায়নিক পদার্থ, কল-কারখানাগুলির ধোঁয়া, লক্ষ কোটি যানবাহনের ধোঁয়া, অতিরিক্ত প্লাস্টিক জাতীয় পদার্থের ব্যবহার, কৃষিতে মারাত্মক কীটনাশকের ব্যবহার প্রভৃতি প্রতিনিয়ত গ্রীনহাউস এফেক্টের প্রভাব বাড়িয়ে তুলছে।

আমাদের ভাবতে হবে যে আমরা ভবিষ্যৎ প্রজন্মের হাতে কি দিয়ে যাচ্ছি।


◕ A platform for writers Details..

◕ Story writing competition. Details..