Home   |   About   |   Terms   |   Contact    
Read & Learn
 

ত্রিপুরার নদ নদী

Rivers of Tripura

Choose language:   English     Bengali

◎ All Articles On Tripura     ◎ All Other Articles







This article is regarding the Rivers of Tripura.
Last updated on: .
Language: Bengali.
Choose language:   English     Bengali




◕ Bengali Story writing competition. More..


পরিচিতি
ত্রিপুরা ভারতের উওর-পূর্ব অঞ্চলের এইটি ক্ষুদ্র রাজ্য। ত্রিপুরাতে অনেকগুলি নদ নদী আছে। ত্রিপুরার মুখ্য 11 টি নদীর নাম হল:

বিজয়, দেও, ধলাই, ফেণী, গোমতী, হাওড়া, জুড়ি, খোয়াই, লঙ্গাই, মনু, মুহুরী।

ত্রিপুরার নদী গুলি ত্রিপুরারই পাহাড় - পর্বত থেকে উৎপন্ন হয়েছে এবং এগুলি সম্পূর্ণ বৃষ্টি নির্ভর। ত্রিপুরার নদী গুলি নৌ চলাচলের জন্য উপযুক্ত নয়। ত্রিপুরার নদীগুলি দিয়ে বৎসরে প্রায় 793 মিলিয়ন কিউবিক মিটার জল প্রবাহিত হয়।

◕ ফেণী এবং লঙ্গাই নদী ভারতের দুটি রাজ্যের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। এই দুটি রাজ্য হল মিজোরাম এবং ত্রিপুরা।

আগরতলা হল ত্রিপুরার রাজধানী এবং ইহা হাওড়া নদীর তীরে অবস্থিত।

ত্রিপুরার নদীগুলি কোন দিকে প্রবাহিত হয়েছে?



ত্রিপুরার নদীগুলির প্রায় সব গুলিই ত্রিপুরা হয়ে বাংলাদেশে প্রবাহিত হয়েছে।

◕ খোয়াই, ধলাই, মনু, জুড়ি এবং লঙ্গাই উওর দিকে প্রবাহিত হয়েছে।

◕ গোমতী ও হাওড়া পশ্চিম দিকে প্রবাহিত হয়েছে।

◕ মুহুরী ও ফেণী নদী দক্ষিণ দিকে প্রবাহিত হয়েছে।

ত্রিপুরার নদীগুলির সংক্ষিপ্ত বর্ণনা

দেও:
অববাহিকা: জম্পুই হিল, ধর্মনগর, কাঞ্চনপুর।
প্রবাহের দিক: উওর। ইহা পরে মনু নদীর সাথে যুক্ত হয়েছে।
দৈর্ঘ্য: 132 km.

ধলাই:
অববাহিকা: লংতরাই, খোয়াই, কমলপুর।
প্রবাহের দিক: উত্তরদিক হয়ে বাংলাদেশ।
দৈর্ঘ্য: 117 km.

গোমতী:
অববাহিকা: লংতরাই, অমরপুর, গন্ডাছড়া, উদয়পুর, সোনামুড়া।
প্রবাহের দিক: পশ্চিম দিক হয়ে বাংলাদেশ।
দৈর্ঘ্য: 133 Km.

হাওড়া:
অববাহিকা: বড়মুড়া, আগরতলা।
প্রবাহের দিক: পশ্চিম দিক হয়ে বাংলাদেশ।
দৈর্ঘ্য: 53 km.

জুরি:
অববাহিকা : জম্পুই হিল, ধর্মনগর।
প্রবাহের দিক: উত্তরদিক।
দৈর্ঘ্য: 79 Km.

খোয়াই:
অববাহিকা: লংতরাই, খোয়াই, অমরপুর।
প্রবাহের দিক: উওর-পশ্চিম দিক হয়ে বাংলাদেশ।
দৈর্ঘ্য: 166 km.

লঙ্গাই:
অববাহিকা: জম্পুই হিল, ধর্মনগর।
প্রবাহের দিক: উওর।
দৈর্ঘ্য: 98 km

মনু:
অববাহিকা: সাকাং রেঞ্জ, লংতরাই, কৈলাশহর।
প্রবাহের দিক: উওর দিক হয়ে বাংলাদেশ।
দৈর্ঘ্য: 167 km.

মুহুরী:
অববাহিকা: দেবতামুড়া, বিলোনীয়া।
প্রবাহের দিক: পশ্চিম দিক হয়ে বাংলাদেশ।
দৈর্ঘ্য: 64 km.

গোমতী নদী

ত্রিপুরার প্রধান নদীর নাম হল গোমতী নদী। ইহার দৈর্ঘ্য হল 133 Km। ইহা অমরপুর, গন্ডাছড়া, উদয়পুর, সোনামুড়া হয়ে সোজা বাংলাদেশ চলেগেছে।

ইহার দুটি উপনদী আছে। এই উপনদী দুটির নাম হল রাইমা এবং শর্মা। রাইমা ও শর্মা, এই দুটি পাহাড়ি নদী দোছরিবাড়ি নামক স্থানে যুক্ত হয়েছে এবং গোমতী নামে সেখান থেকে প্রবাহিত হয়েছে। তীর্থমুখের কাছে ডুম্বুর নামক স্থানে ডুম্বুর জলপ্রপাত তৈরী করে গোমতী নদী সমতল ভূমিতে নেমে এসেছে।

প্রবাদ আছে যে ভগবান বিষ্ণুর পদচিহ্ন রয়েছে তীর্থমুখে। এই কারণে প্রতিবছর মকর সংক্রান্তিতে হাজারো নর-নারী তীর্থমুখের জলে পবিত্র স্নান করেন।

গোমতী নদীর এই ডুম্বুর জলপ্রপাতেই ত্রিপুরার একমাত্র জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। গোমতী নদী বাংলাদেশে প্রবেশ করে মেঘনা নদীতে মিলেগেছে।

◕ Bengali Story writing competition. More..



◕ Related articles:

Tripura Railway
Time schedule of Tripura Trains
Express & Passenger trains of Tripura (Bengali)



Top of the page