Home   |   About   |   Terms   |   Contact    
RiyaButu
A platform for writers

স্বামী বিবেকানন্দ


Swami Vivekananda


Swami Vivekananda







স্বামী বিবেকানন্দের কথা
পর্ব ২
২৯-০৪-২০১৯ ইং


আগের পর্ব গুলি: পর্ব ১   


swami-vivekananda



◕ Send your story to RiyaButu.com and get ₹ 500/- Details..

◕ Bengali Story writing competition. Details..


◕ যখন বিদ্যাসাগর মহাশয় শিক্ষক আর স্বামীজী ছাত্র

নরেন তখন মেট্রোপলিটন স্কুলে।

একদিন ক্লাস চলাকালীন ক্লাসের একটি অবাধ্য ছেলের কিম্ভুতকিমাকার আচরণে ক্লাসের সমস্ত ছেলেরা হঠাৎ হেসে উঠল। এতে শিক্ষক মহাশয় ছেলেটিকে খুব তিরস্কার করলেন। কিন্তু ছেলেটি এমনি অবাধ্য ছিল যে, সে শিক্ষক মহাশয়ের তিরস্কারকে উপেক্ষা করে, উল্টো শিক্ষক মহাশয়কে উপহাসের পাত্র বানাতে লাগল। এতে শিক্ষক মহাশয়টি অতি ক্রুদ্ধ হয়ে ভাবলেন, এই সমস্ত ঘটনাটি বুঝি নরেনের ইশারায় হচ্ছে, সব ঘটনার পিছনে বুঝি নরেনের বুদ্ধিই কাজ করছে।

তিনি প্রচণ্ড ক্রুদ্ধ হয়ে গায়ের সকল শক্তি দিয়ে নরেনের কান মলতে লাগলেন। তিনি এত জোরে-জোরে কান মলতে লাগলেন যে, অল্প সময়ের মধ্যেই কানের লতি ফেটে ঝর-ঝর করে রক্ত ঝরে পড়তে লাগল। যন্ত্রণায় কাতর নরেন কোনও কথা না বলে চুপ-চাপ নিজের সকল বই পত্র নিয়ে ক্লাস থেকে সোজা বেড়িয়ে গেলেন। দৈবক্রমে ক্লাস থেকে বের হতেই তিনি স্বয়ং ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর মহাশয়ের সামনে পড়ে যান। বিদ্যাসাগর মহাশয় ছিলেন ঐ স্কুলের প্রিন্সিপাল।

রতনে রতন চেনে। বিদ্যাসাগর মহাশয় জানতেন নরেন কোন জগতের ছেলে, কোন ধাতের মানুষ। তিনি নরেনকে এভাবে ক্লাস থেকে বেড়িয়ে যেতে দেখে কারণ জানতে চাইলেন। নরেনের কান থেকে ঝর-ঝর করে ঝরে পড়া রক্ত সব কথা বলে দিচ্ছিল। তিনি নরেনের কাছে সকল ঘটনাটি জানতে চান। নরেন সকল ঘটনা খুলে বললেন। তখন বিদ্যাসাগর মহাশয় নরেনকে সাথে নিয়ে ক্লাসে প্রবেশ করলেন। তিনি সকলের সামনে সেই শিক্ষক মহাশয়কে খুব তিরস্কার করে বললেন, "আমি জানতাম আপনি একজন শিক্ষক, এক জন মানুষ। এখন দেখছি আপনি একজন পশু। ঘটনা বিচারের ক্ষমতাই আপনার নেই। রাগে অন্ধ হয়ে আপনি সূর্যের কান টানতে চলছেন? চলুন, আপনার ঐ বইটির যে কোনও পাতা থেকে নরেনকে প্রশ্ন জিজ্ঞাস করুন। চলুন-"

শিক্ষক মহাশয়টি সারা বই থেকে একে-একে অনেক প্রশ্ন করলেন, স্বামীজী সব প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিয়ে গেলেন। এক সময় শিক্ষক মহাশয়টি ক্ষান্ত হয়ে পড়লে বিদ্যাসাগর মহাশয় বললেন, "এবার নরেন এই বইটি থেকে আপনাকে একটি প্রশ্ন করবে।"

নিজের অনিচ্ছা স্বত্বেও প্রিন্সিপালের আদেশে নরেন একটি প্রশ্ন করলেন, শিক্ষক মহাশয়টি উত্তর দিতে পারলেন না। তখন বিদ্যাসাগর মহাশয় ঐ শিক্ষককে সম্মানের সাথে বললেন, "এতে লজ্জা পাবার কিছু নেই। নরেন সকল প্রশ্নের উত্তর দিতেই এখানে এসেছে। ওর প্রশ্নের উত্তর দেবার লোক খুবই কম। ছেলেটিকে চিনে রাখুন। আপনি এই ছেলেটির শিক্ষক ছিলেন, একদিন এটিই আপনার কাছে এক গর্বের বিষয় হয়ে থাকবে।"

স্বামীজীর কণ্ঠস্বরের রেকর্ড আজো আছে কোথায়?



◕ Send your story to RiyaButu.com and get ₹ 500/- Details..

◕ Bengali Story writing competition. Details..




◕ This page has been viewed 307 times.


আগের পর্ব গুলি: পর্ব ১   


গোয়েন্দা গল্প ও উপন্যাস:
নয়নবুধী   
মাণিক্য   
সর্দার বাড়ির গুপ্তধন রহস্য   
প্রেমিকার অন্তর্ধান রহস্য   
লুকানো চিঠির রহস্য