Home   |   About   |   Terms   |   Library   |   Contact    
A platform for writers

অচিন পাখি

বাংলা গল্প

All Bengali Stories    98    99    100    101    102    103    104    105    (106)     107    108   

-------- বিজ্ঞপ্তি ----------
■ 'স্বরচিত কবিতা প্রতিযোগিতা, ফেব্রুয়ারি - ২০২৩' Details
--------------------------



অচিন পাখি

লেখিকা- এনা সাহা, পিতা- রৌনক সাহা নোনাচন্দনপুকুর, ব্যারাকপুর


26 th June, 2021

## অচিন পাখি
লেখিকা- এনা সাহা, পিতা- রৌনক সাহা নোনাচন্দনপুকুর, ব্যারাকপুর

"তারে ধরতে পারলে মন বেড়ি-
দিতাম পাখির পায়ে
কেমনে আসে যায় ..."

ভোর ৪:০০ নাগাদ উঠে রেডিওতে গান শোনা আমার নিত্যদিনের অভ্যাস। আজ রেডিওতে এই গানটা শুনে মনটা ভরে উঠলো। আমার প্রিয় একটা গান। আমি গ্ৰামের মেয়ে রূপা। প্রকৃতি এবং সঙ্গীত এই দুটো জিনিস আমাকে খুব টানে। হঠাৎই শুনতে পেলাম আমাদের বাড়ির সামনের আমগাছটার নীচে একজন গলা ছেড়ে গান গাইছেন তার একতারাটা হাতে নিয়ে,
"তারে ধরি-ধরি মনে করি
ধরতে গেলে আর পেলেম না-
দেখেছি মনের মানুষ কাঁচা সোনা..."

আমি ছুটে গেলাম তার কাছে। উনি কোনও বৃদ্ধ নয়,ইনি একজন যুবক। মুখ ভর্তি চাপদাড়ি,পরনে হলুদ পাঞ্জাবী,কাঁধে একটা ঝোলা,হাতে একতারা। আমি খুব সন্তর্পণে বসলাম তার পায়ের কাছটাতে। গান শুনতে-শুনতে অবুঝের মতোই তার দিকে তাকিয়ে আছি। হঠাৎ তার গান শেষ হল। আমাকে লক্ষ্য করে সে বলল, "একী!!!আপনি আমার পায়ের কাছে বসে আছেন?"

আমি সম্বিত ফিরে পেয়ে বললাম, "আপনি এত সুন্দর গান গাইছিলেন যে আমি ঘরে থাকতে পারলাম না। ঘরে বসে রেডিওতে গান শুনছিলাম। কিন্তু আপনার গান আমাকে বাহিরে বার করে আনল। আপনি কোথা থেকে আসছেন?"

একথা শুনে উনি খানিক হেসে বললেন, "হা-হা! আমি তো থাকি আরশি-নগরে। আমার বাসা খুঁজে পাওয়া মুশকিল..."

আমি খানিক ভেবে বললাম, "আরশি-নগর কোথায়?"

উনি আবারো হেসে বললেন, "চোখ বন্ধ করে খুঁজো..."

বললাম, "আমাকে একখানি গান শোনান..."

তিনি একতারা বাজিয়ে গান ধরলেন,
"ভুবনমোহিনী গোরা
কোন গুণীজনার মনোহরা?
আমি রাধার প্রেমে মাতোয়ারা,
থাকব না কো না না না
যেতে দেবো না।
তোমায় হৃদ মাঝারে রাখিব ছেড়ে দেব না..."

অসাধারণ কণ্ঠে গান শুনতে-শুনতে চোখ বন্ধ করে ফেললাম। হঠাৎই অনুভব করতে লাগলাম আমি অন্ধকারের অতলে ডুবে যাচ্ছি। কেও কোথাও নেই। হঠাৎই অন্ধকারে সূক্ষ্ম আলোর স্পর্শতায় আমি দেখতে পেলাম একজন পুরুষের দেহ থেকে বিনির্গত হচ্ছে আলোর রশ্মি। তার তেজ-দীপ্ত মুখমণ্ডলে ফুটে উঠেছে পূর্ণেন্দুর মতো হাসি। আমি যত দেখছি বিভোর হয়ে যাচ্ছি। অবশেষে সেই পুরুষ বলে উঠলেন, "তুমি মনের মানুষ পেয়ে গেছো। তার বাড়ি আরশি-নগরে। সেই তোমার পড়শি,সেই ভুবনমোহিনী গোরা, সে-ই তোমার কাঁচা-সোনা,আবার সে-ই অচিন পাখি। তাকে বেঁধে রেখে মনোবেড়ি পড়িও না। গানের সুরে-সুরে আগলে রাখো..."

এরপরেই আমি আবারো একটা অন্ধকারে তলিয়ে গেলাম। জ্ঞান ফিরতেই চোখ খুলে দেখি আমি আমার ঘরেই বসে আছি। রেডিওতে তখন গান বাজছে,
"তবু লক্ষ যোজন ফাঁক রে
আমি একদিনও না দেখিলাম তারে-
আমার বাড়ির কাছে আরশি-নগর
ও এক পড়শি বসত করে..."

আমার চোখ দিয়ে অঝোরে অশ্রুধারা বইছে। অবুঝের মতো উপর পানে চেয়ে আছি। পড়শিকে কখনো আটকানো যায় না। কিছু পড়শি তাদের সাথে লক্ষ-যোজন ফাঁকের দূরত্ব হলেও তারা মনের মানুষ হয়ে ওঠে। আবার মনোবেড়ি পড়িয়ে ধরতে গেলেই অচিন পাখির মতো উড়ে যায় নিভৃত ভালোবাসা-বাসির ঊর্ধ্বে।
( সমাপ্ত )


Next Bangla Story

All Bengali Stories    98    99    100    101    102    103    104    105    (106)     107    108   


## Disclaimer: RiyaButu.com is not responsible for any wrong facts presented in the Stories / Poems / Essay / Articles / Audios by the Writers. The opinion, facts, issues etc are fully personal to the respective Writers. RiyaButu.com is not responsibe for that. We are strongly against copyright violation. Also we do not support any kind of superstition / child marriage / violence / animal torture or any kind of addiction like smoking, alcohol etc. ##


◕ RiyaButu.com, এই Website টি সম্পর্কে আপনার কোনও মতামত কিংবা পরামর্শ, কিংবা প্রশ্ন থাকলে নির্দ্বিধায় আমাদের বলুন। যোগাযোগ:
E-mail: riyabutu.com@gmail.com / riyabutu5@gmail.com
Phone No: +91 8974870845
Whatsapp No: +91 6009890717