Home   |   About   |   Terms   |   Book Rent   |   Contact    
Flag
A platform for writers

গুনগুন

কবিতার পাক্ষিক ম্যাগাজিন ( online ) - ৪ র্থ সংখ্যা

## এই পক্ষের কবিতা

## গুনগুনের সবগুলি সংখ্যা

গুনগুন
কবিতার পাক্ষিক ম্যাগাজিন ( online ) - ৪ র্থ সংখ্যা
২৫ ই জুন, ২০২২


RiyaButu.com হল আপনার কবিতা প্রকাশের একটি মুক্ত মঞ্চ। ঘরে বসেই যেকেউ নির্দ্বিধায় আমাদের কাছে নিজের লেখা পাঠাতে পারেন। 'গুনগুন' হল Online কবিতার একটি পাক্ষিক Magazine. নিয়মাবলী নীচে দেওয়া হল:

১) যেকেউ আমাদের কাছে কবিতা পাঠাতে পারেন। এটা সবার জন্য উন্মুক্ত। কোনও এন্ট্রি-ফি নেই।

২) ভাষা: বাংলা

৩) বিষয়: যেকোনো বিষয়ের কবিতা।

৪) আমাদের কাছে যে কবিতাগুলি আসবে তাদের মধ্য থেকে নির্বাচিত কবিতাগুলি আমাদের পাক্ষিক কবিতার Online Magazine 'গুনগুন'-এ প্রকাশিত হবে। গুনগুন প্রকাশিত হবে প্রতিমাসের ১০ তারিখে এবং ২৫ তারিখে।

৫) নির্বাচিত কবিতাগুলি কবিদের নাম-ধাম সহ RiyaButu.com এর 'গুনগুন' পাতায় প্রকাশিত হবে। এর জন্য কোনোরূপ অর্থ প্রদান করা হবে না।

৬) কবিতা অবশ্যই স্বরচিত হতে হবে। কবিতা টাইপ করে PDF / MS Word form-এ E-mail-এর মাধ্যমে আমাদের কাছে পাঠাতে হবে। কোনও রূপ Hardcopy কিংবা Whatsapp এ নয়। কবিতার সাথে কবির নাম, বাবার নাম, ঠিকানা এবং ফোন নম্বর অবশ্যই পাঠাতে হবে। অন্যের লেখা নিজের নামে পাঠানোর দায় একমাত্র E-mail প্রেরকের উপর থাকবে। RiyaButu.com এ ব্যাপারে কোনও ভাবেই দায়ী থাকবে না।
আমাদের E-mail ID:
riyabutu.com@gmail.com
riyabutu5@gmail.com

৭) প্রতিটি কবিতা নীচে অবশ্যই লিখে দিতে হবে যে,
"এই কবিতাটি আমার স্বরচিত। কবিতাটি এর আগে আর কোথাও প্রকাশিত হয়নি।"

৮) লেখা প্রকাশিত হবার পর RiyaButu.com থেকে লেখা Delete করার, কিংবা বাদ দেওয়ার অধিকার শুধু RiyaButu.com এর থাকবে।

৯) উপরের যেকোনো বিষয়ে কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত হবে।

এই বিষয়ে যেকোনো প্রশ্ন থাকলে বিনা দ্বিধায় আমাদের এখুনি প্রশ্ন করুন।

আমাদের ঠিকানা:
ধলেশ্বর - ১৩
আগরতলা, ত্রিপুরা ( পশ্চিম ), ভারত
৭৯৯০০৭

যোগাযোগ:
Call: +91 8974870845
Whatsapp: +91 7005246126
E-mail ID:
riyabutu.com@gmail.com
riyabutu5@gmail.com


■ এই Platform এর উদ্দেশ্য:
আমাদের উদ্দেশ্য বিশ্বময় লেখক ও পাঠকদের একটি সাহিত্যের মঞ্চ প্রদান করা। দূর-দূরান্তে অনেক ভাল লেখক / লেখিকা আছেন, যারা খুব ভাল লেখা লিখছেন, কিন্তু কোথাও প্রকাশ করার সুযোগ পাচ্ছেন না। তেমনি দূর-দূরান্তে অনেক মূল্যবান, মনোযোগী পাঠক পাঠিকা আছেন যারা নতুন লেখা পড়তে খুব ভালবাসেন, কিন্তু পড়ার সুযোগ পাচ্ছেন না। RiyaButu.com তাদের সকলের পাশে দাঁড়িয়ে সকলকে এক মঞ্চে নিয়ে আসতে চাইছে। বিশ্বময় মূল্যবান পাঠক / পাঠিকাদের কাছে বিশ্বময় লেখক / লেখিকাদের লেখা পৌঁছে যাক, এই আমাদের লক্ষ্য।

গুনগুনের এই পক্ষের কবিতা

■ কবিতা-১

সূচনান্ত

কবি - দিগন্ত পাল, দানেশ শেখ লেন, হাওড়া, পশ্চিমবঙ্গ

বহমান শলিলে তরঙ্গ যত,
প্রসারণশীল সময়দূরত্বে কোয়ান্টাম কণার মত,
যেমন আত্মা অশান্ত পরমাত্মার পুঞ্জীভূত উদ্দীপনা।
শলিলের প্রবাহে প্রতিবাদী যে সান্দ্রতা,
অভিকর্ষের ছদ্মবেশে সময়দূরত্বের নমনীয়তা,
তরঙ্গ ও কোয়ান্টাম কণাকে যথাক্রমে দেয় জাড্য;
ঠিক আত্মা যেমন কায়ায় আকারে সনাক্ত;
টানা-পোড়েনে ক্ষয়ের পালা পেরিয়ে
উৎসে বিলীন হওয়াই অদৃষ্ট।
( সমাপ্ত )



■ কবিতা-২

দ্বিতীয় সত্তা

কবি - অনুশ্রী কুণ্ডু (রাইকিশোরী), কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ

ধূসর ও ধোঁয়াশার মেলবন্ধনে দ্বিতীয় সত্তার বহিঃপ্রকাশ
ঘূর্ণাবর্তের ন্যায় আত্মকেন্দ্রিক মনের বিকাশ
এক লহমায় প্লাবিত স্রোতের উচ্ছ্বাস
বাস্তব আজ অধরা প্রায়, প্রতিবিম্বের ন্যায়।

আপনারে অজ্ঞাতসারে উন্মুক্ত করবার এক নয়া প্রয়াস
হয়তো হাজারও তারার ভিড়ে, একলা আজও রাতের আকাশ
একাকীত্বে মিশিয়েছে সে, এক অন্য আমির শ্বাস-প্রশ্বাস
চলেছে বোঝাপড়া সুগভীর স্তরে, ঝরাপাতার ঘরে।

যেন এক পরজীবীর আকস্মিক অপরিকল্পিত বাস
স্মরণের কাঠগড়ায় দুরন্ত ইতিহাস
সহজের দিকে তাকিয়ে কঠিনের পরিহাস
চিরাচরিত ভাবনারা তাই আবদ্ধ আজ, চক্রাকার জটিলতায়।

হল প্রথমার প্রবেশ দ্বিতীয় সত্তায়, চূড়ান্ত পর্যায়॥
( সমাপ্ত )



■ কবিতা-৩

ধ্যাত্তারি!

কবি - অনুশ্রী কুণ্ডু (রাইকিশোরী), কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ হঠাৎ কেমন করছে যেন মাথাটা ঝিমঝিম
মা বলে যেই পড়তে বসো,
ভয় সিঁটিয়ে হিম।

বাংলা হলেও মাতৃভাষা, যুক্তাক্ষর ভোগায়
বর্ণমালা ব্যঙ্গ করে নাচছে নাকের ডগায়।
চন্দ্রবিন্দু, বিসর্গ, রেফ, য-ফলা, র-ফলা
গাঁথিয়ে মনে বসিয়ে রাখার রয়েছে কি ফর্মুলা?

বিষয় যখন ইতিহাসের, মগজ গোলকধাঁধায়
দিনক্ষণ, মাস, বছর যেন পরীক্ষাতে কাঁদায়।

বাবিন আবার চোখ পাকিয়ে বেত হাতে যেই ঘোরে
যতটুকু মুখস্থ যায় স্মৃতি থেকে সরে।

সময় হলে অঙ্ক কষার, হিসেবে গরমিল
BODMAS-এদের বদমাশিতে পড়ছে পিঠে কিল।
এক থেকে নয় গোবেচারা, শূন্যের যত দোষ
দস্যি গণিত কিচ্ছুতে হায় মানছে না আর পোষ।

ভূগোল? সে এক দুর্বিষহ দুর্বোধ্যের জট
মানচিত্রের হিজিবিজি করাচ্ছে ছটফট।

এবার পাওয়া ইংরাজীতে, একশোতে ছাব্বিশ
সেই কারণে এক্কেবারে রুষ্ট বাড়ির মিস।
ইংরাজীটা উচ্চারণে, ঠিক উচ্ছের মতো
জিভের সাথে দন্তরাশি খাচ্ছে খালি গুঁতো।

রসায়নে রস ছাড়া আর বাদবাকি সব আছে
H2O, O2 তদাদি বিঁধছে গলার কাছে।

সেভেন থেকেই দশ, এগারো পদার্থবিদ্যায়
কমতে-কমতে শূন্যে এসে দাঁড়িয়েছে দোরগোড়ায়।

জীবন যখন বিষয় হয়ে বিজ্ঞানেতে মেশে
অঙ্গের সব কার্যকলাপ চোখে আসে ভেসে।
ঠিক তখনই ডিগবাজি খেয়ে ভাবনা বোঝায় কঠিন
কাটা-ছেঁড়ায় তালগোল প্রায় মস্তিষ্কের রুটিন।

দিভাই শেখায় ডেক্সটপেতে কম্পিউটার সাইন্স
উৎপীড়নে কপাল জুড়ে ঢেউ খেলানো লাইনস।
যেই বলি যাই খেলতে এবার স্নিগ্ধ সবুজ মাঠে
ভয় দেখিয়ে চুপটি করে বসিয়ে দেবে খাটে।

জানতে হবে, শিখতে হবে নইলে তুমি বোকা
ব্যঙ্গ করে ডাকবে লোকে ক্যাবলাকান্ত খোকা।
না যদি চাও শুনতে এমন, জ্ঞানের অন্ত বাড়াও
পড়ার সময়ে অন্তরের ওই অস্হিরতা কমাও।

অগত্যা সেই পড়তে বসা, স্বল্প বিরাম নাই
কেউ বোঝে না মন বসাতেই খেলতে সময় চাই।
বদ্ধ ঘরে একনাগাড়ে পড়তে কি আর পারি
কেন যে ছাই কেউ বোঝে না সেই কথা, ধ্যাত্তারি!
( সমাপ্ত )



■ কবিতা-৪

দিগন্তের পাখি ( কাব্যগ্রন্থ ) - কবিতা নং - ১

কবি - হরপ্রসাদ সরকার, ধলেশ্বর-১৩, আগরতলা, ত্রিপুরা

পাষাণের মূর্তি গড়ে-গড়ে বুঝি পাষাণ হয়েছে হৃদয়?
প্রেমের মূর্তি গড়ে-গড়ে বুঝি প্রেম হয়েছে ক্ষয়!
যার ছবি বুকে লয়ে গড়ো একে-একে নিশান-
তার কোন্ অবহেলা তোমায় করেছে পাষাণ?
আজো তার ছবি যদি মনেতে নাহি থাকে,
পাথরে রূপ পেল তবে তা এক-এক কিভাবে?
পাষাণে রূপ দিলে যে মানবীরে এমন
তার স্থিতি কভু তুমি ভেবেছ কী কখন?
তুমি গড়ো প্রাণ-হীন পাষাণ, অশ্রুতে সে হয়েছে পাষাণ
অভিমান, অবহেলার এ-কি অবসান!!
আজো যার শূন্য চোখ খুঁজে বেড়ায় তোমা-দেবতা
তার কথাই জানাতে তোমায়, এ পাষাণ কবিতা!!
( সমাপ্ত )



■ কবিতা-৫

দিগন্তের পাখি ( কাব্যগ্রন্থ ) - কবিতা নং - ২

কবি - হরপ্রসাদ সরকার, ধলেশ্বর-১৩, আগরতলা, ত্রিপুরা

শুনেছি সে নাকি খুঁজে বেড়ায়
সখীদের কাছে মোর কোনও এক ছবি-
কে বলে দিবে তারে, তার কথা লিখে-লিখে হয়েছি কবি।
রবির মত সে তার প্রেম দিনের আলোয় ছড়ায়
রাতের আধারে গোপনে জ্বলি মিটিমিটি প্রায়।
হাজার তারা কোনায়-কোনায়, সবাই চেয়ে থাকে
মোর গোপন প্রেমের কথা-হিসাব সব লিখে রাখে।
দিনেতে রয় না কোনও তারা, তাই সে দেখে না-
সে খুঁজে মোর একটি ছবি, মোর বুকে তার হাজার আল্পনা।
( সমাপ্ত )



■ কবিতা-৬

দিগন্তের পাখি ( কাব্যগ্রন্থ ) - কবিতা নং - ৩

কবি - হরপ্রসাদ সরকার, ধলেশ্বর-১৩, আগরতলা, ত্রিপুরা

ধনী: মনে বড় আছে আশা-
বাবুই পাখির বাসা।

গরীব: মনে বড় ছিল আশা-
চড়াই পাখির বাসা।

অলস: মনে বড় ছিল আশা-
কাক পাখির বাসা।

স্বপ্ন: সব আশা রয়ে গেল
ঈগল পাখির বাসা।
( সমাপ্ত )

## Next Episode

## গুনগুনের সবগুলি সংখ্যা


## Disclaimer: RiyaButu.com is not responsible for any wrong facts presented in the Stories / Poems / Essay / Articles / Audios by the Writers. The opinion, facts, issues etc are fully personal to the respective Writers. RiyaButu.com is not responsibe for that. We are strongly against copyright violation. Also we do not support any kind of superstition / child marriage / violence / animal torture or any kind of addiction like smoking, alcohol etc. ##


◕ RiyaButu.com, এই Website টি সম্পর্কে আপনার কোনও মতামত কিংবা পরামর্শ, কিংবা প্রশ্ন থাকলে নির্দ্বিধায় আমাদের বলুন। যোগাযোগ:
E-mail: riyabutu.com@gmail.com / riyabutu5@gmail.com
Phone No: +91 8974870845
Whatsapp No: +91 7005246126