Home   |   About   |   Terms   |   Contact    
Read & Learn
 

ত্রিপুরার ইতিহাস
( পর্ব ১০)

Tripura History

◎ All Articles On Tripura     ◎ All Other Articles



This article is regarding the History of Tripura.
Last updated on: .



ত্রিপুরার রাজচিহ্ন ও রাজকার্যে ব্যবহৃত সিল-মোহর
ত্রিপুরার ইতিহাস
( পর্ব ১০)



◕ Bengali Story writing competition. More..


◕ ত্রিপুরার রাজচিহ্ন

সুপ্রাচীন কাল থেকে ত্রিপুরায় ৯টি রাজচিহ্ন প্রচলিত হয়ে আসছে। সেগুলি হল:
১) হনুমান ধ্বজ
২) ধবল-ছত্র
৩) চন্দ্রবাণ
8) সূর্যবাণ
৫) মীন-মনুষ্য
৬) দণ্ড
৭) আরঙ্গি
৮) মানব হস্ত ( পাঞ্জা)
৯) তাম্বূল পত্র

এই নয়টি প্রধান রাজচিহ্ন হলেও আরও কিছু উপ-চিহ্ন ততকালে বর্তমান ছিল।


◕ ত্রিপুরার রাজকার্যে ব্যবহৃত সিল-মোহর



সুপ্রাচীন কাল থেকেই ত্রিপুরার রাজকার্যে তিন রকমের সিল-মোহর ব্যবহৃত হয়ে আসছে। যথা:
ক) পদ্ম মোহর
খ) দেবাজ্ঞা মোহর
গ) খাস মোহর


ক) পদ্ম-মোহর

এই সিল-মোহর প্রধানত সরকারী হুকুমনামায়, সরকারী আদেশপত্রে, ফরমান, দলিল কিংবা উপাধি প্রভৃতি সনদ-আদি কাজে ব্যবহৃত হতো। এই সিল-মোহরের মধ্যস্থলে মহারাজের নাম বাংলা ভাষায় খুদিত থাকত। সেই নামের চারপাশে পূর্ববর্তী রাজাদের নাম চক্রাকারে খুদিত থাকত।

খ) দেবাজ্ঞা মোহর

এই সিল-মোহর প্রধানত রাজ-কর্মচারী কিংবা প্রজাদের উদ্দেশ্যে লেখা কোনও চিঠিতে ব্যবহৃত হতো।
মহারাজ কৃষ্ণমাণিক্যের দেবাজ্ঞা মোহরে বাংলা ভাষায় 'শ্রীরামাজ্ঞা' খুদিত ছিল।
মহারাজ দূর্গামাণিক্যের দেবাজ্ঞা মোহরে বাংলা ভাষায় 'কালীংভজ' খুদিত ছিল।
মহারাজ কৃষ্ণচন্দ্র মাণিক্যের দেবাজ্ঞা মোহরে বাংলা ভাষায় 'শিবাজ্ঞা' খুদিত ছিল।
মহারাজ ঈশানচন্দ্র মাণিক্যের দেবাজ্ঞা মোহরে বাংলা ভাষায় 'শ্রীগুরু আজ্ঞা' খুদিত ছিল।
মহারাজ বীরচন্দ্র মাণিক্যের দেবাজ্ঞা মোহরে বাংলা ভাষায় 'শ্রীগোবিন্দ আজ্ঞা' খুদিত ছিল।

গ) খাস মোহর

এই সিল-মোহরে মহারাজের নাম পারসি ভাষায় খুদিত থাকত। জমিদারির কাজে, কবুলিয়ত নামায়, দরখাস্ত, নোটিশ ইত্যাদি কাজে এই সিল-মোহর ব্যবহৃত হতো।

◕ Bengali Story writing competition. More..




Next Part
ত্রিপুরার ইতিহাস সম্পর্কে জানুন প্রতি সোমবার ও শুক্রবার।

ত্রিপুরা সম্পর্কিত আরও কিছু তথ্য:
পর্ব ১     পর্ব ২     পর্ব ৩     পর্ব ৪     পর্ব ৫     পর্ব ৬     পর্ব ৭     পর্ব ৮     পর্ব ৯    

◕ This page has been viewed 151 times.

Top of the page