Home   |   About   |   Terms   |   Contact    
A platform for writers

দুই বীজের গল্প

হরপ্রসাদ সরকার, ধলেশ্বর - ১৩, আগরতলা, ত্রিপুরা

All Pages   ◍    3    4    5    (6)     7    8    9    10    ...



◕ A platform for writers Details..

◕ Story writing competition. Details..




এক মহাকায় বৃক্ষের দুটি বীজ ছিল। একটি বীজের ভীতরে মূল আর বিটপের মধ্যে ঝগড়া চলছিল।

মূল বলছিল আমার গুরুত্ব বেশী , আমি বেশী বড় , আমি বেশী দামি। কারণ আমি যদি জল আর অন্য উপাদান সংগ্রহ না করি তবে হে বিটপ তোমার কোন দাম নাই। আমি যদি মাটি আঁকড়ে না পড়ে থাকি তবে তুমি মাটিয়ে এমনিই লুটিয়ে পড়বে। হে বিটপ তোমার তো কত সুখ ! পশু পাখী দেখ, আলো বাতাসে দিন রাত খেলা কর। চাঁদ দেখ, সূর্য দেখ। আমি এত কষ্ট করি আর সব সুখ তুমি ভোগ কর।

বিটপ ও তেমন চড়া সুরেই বলল। কষ্ট তুমি কর না আমি করি। তুমি তো মাটির ভীতরে আরামে ঘুমাও। আর আমি দিনের পর দিন তপ্ত রোদ মাথায় নিয়ে থাকি, দিনের পর দিন ঝড়-বৃষ্টি আমার মাথার উপর দিয়ে যায়। পশু, পাখীর কত অত্যাচার আমাকে সহ্য করতে হয়। আর আমি যদি সূর্যের আলো না নিতাম তবে তুমি কি আর বেঁচে থাকতে ! তাই তুমি যত কথাই বল আমিই বড়, আমারই গুরুত্ব বেশী , আমারই দাম বেশী।

তাদের প্রায়ই এ নিয়ে ঝগড়া হত। তাদের ঝগড়া দেখে পাশের বীজের ভিতরের মূল আর বিটপ নিজেদের মধ্যে বলাবলি করতে লাগল। দেখ ভাই , আমারা দুজন চিরদিন আপন ভাই হয়েই থাকব। কে বড়? কে ছোট ? এ নিয়ে আমরা কোনদিন ঝগড়া করব না। আমি তো মূল আমি মাটির নীচে চলে যাব আর তুমি তো বিটপ তুমি মাটির উপরে চলে যাবে। তবে দিনের শেষে আমারা দুজনেই সারাদিনের ঘটনা সব নিয়ে গল্প করব।
বিটপ মূলের গলা জড়িয়ে ধরে বলল , তেমনি হবে ভাই। আমি তো কোনদিন তোমাকে আর দেখতে পাব না শুধু কথাই শুনব। যতদিন বেঁচে থাকি আমাদের মধ্যে যেন কখনো কথা বন্ধ না হয়।

যথা সময়ে দুটি বীজ মাটি পড়ল, আর তারা গাছ হয়ে উঠল। ধীরে ধীরে তারা বড় হতে লাগল। যে বীজের ভীতর ঝগড়া চলছিল সেই ঝগড়া ধীরে ধীরে যুদ্ধের রূপ নিলো। একে অপরকে শিক্ষা দিতে শিকড় তার কাজ বন্ধ করল। বিটপ ও শিকড়কে শিক্ষা দিতে নিজের কাজ বন্ধ করল। কিছুদিনের মধ্যেই এত বড়, এত সুন্দর একটা তরুণ-তাজা, যৌবন গাছ শুকিয়ে যেতে লাগল। নিজের মরণ দেখেও তারা অভিমান, আত্ম-অহংকার ছাড়ল না। শেষে একদিন হাল্কা বাতাসে শিকড় সহ গাছটা মাটিতে লুটিয়ে পড়ল , আর উঠল না।

আর অন্য গাছটা ? সেই প্রথম দিন থেকেই মূল আর বিটপ একে অপরকে নিজেদের গল্প , নিজেদের অভিজ্ঞতা খুলে বলতে লাগল। আজ কে কি করল ? কি কি মজার ঘটনা ঘটল। দুজন হাসতে-খেলতে বড় হতে হতে এক বিশাল বৃক্ষের রূপ নিলো। আজ নিজেদের আনন্দে , খুশিতে , হাসিতে তারা চারিদিক ভরে রেখেছে। রং-বিরংগী পাখীরা দূর দূর থেকে উড়ে এসে তার ডালে বসে, গান করে, খেলা করে। প্রজাপতিরা আঁকা বাঁকা পথে কত কথা লিখে যায়। পথিকরা তার ছায়ায় বসে বিশ্রাম করে। কয়েক যুগ পেরিয়ে গেল, আজো তারা তেমনি আছে। তাদের সবুজ পাতায় হাওয়ারা এসে খেলা করে। রাতে চাঁদের আলো পাতায় পাতায় রুপালি রং ছড়িয়ে দেয়। ভোরের হাল্কা সোনালী আভায় পাতারা যেন আবার নতুন রূপ ধারণ করে , সূচনা হয় এক নতুন দিনের , এক নতুন আশার , এক নতুন আনন্দের।



◕ A platform for writers Details..

◕ Story writing competition. Details..



All Pages     3    4    5    (6)     7    8    9    10    ...